শিরোনামঃ

শিল্পকলা একাডেমী সম্মাননা পেলেন সংগঠক মনোজ বাহাদুর গুর্খা

সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটি পার্বত্য জেলায় সঙ্গীত জগতে বিশেষ অবদান রাখায় কন্ঠ সংগীত বিভাগে জেলা শিল্পকলা একাডেমী সম্মাননা-২০১৪ পেয়েছেন রাঙামাটি সাংস্কৃতিক সংগঠন সূর নিকেতনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মনোজ বাহাদুর গুর্খা। Monoaj Bahadur copy
গত শুক্রবার (১৯ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে গুনী সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শহীদউল্লাহ ও রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য জেবুন্নেসা রহিম মনোজ বাহাদুরকে গলায় মেডেল পরিয়ে তাঁর হাতে এ সম্মাননা সনদ ও ক্রেস্ট তুলে দেন।

সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত : নাম মনোজ বাহাদুর গুর্খা, পিতা স্বর্গীয় জিৎ বাহাদুর মাঝি, মাতা স্বর্গীয়া ভানু মায়া মাঝি, সহধর্মিনী লক্সমী দেবী গুর্খা। বর্তমানে তিনি শহরের জেল রোড বাহাদুর পাড়ায় স্বপরিবারে বসবাস করছেন। শিক্ষা বি,এ পাশ, জন্ম ২০জুন ১৯৫৭খ্রিঃ।
সঙ্গীত জীবন:- তাঁর বড় বোন মঞ্জু রানী গুর্খার হাত ধরে সঙ্গীত জীবন শুরু। বহু গুনী সঙ্গীত শিল্পীর সান্নিধ্য লাভের মধ্যে রয়েছেন, তার মধ্যে স্বর্গীয় সুরেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, শ্রী যতীন রোয়াজা, মরহুম দেলোয়ার হোসেন, স্বর্গীয় জগদানন্দ বড়–য়া, স্বর্গীয় অমিতাভ বড়–য়া, স্বর্গীয় দীলিপ দাশ গুপ্ত, হিমাংশু বিমল দাশ, স্বর্গীয় কল্যাণ মিত্র বড়–য়া, স্বর্গীয় সোমেস্বর বড়–য়া, স্বর্গীয় বিমলেন্দু দেওয়ান প্রমূখ।
১৯৭৬ সালে তিনি চট্টগ্রাম বেতারে কণ্ঠস্বর পরীক্ষায় উর্ত্তীন হন। সেখানে তিনি সান্নিধ্য লাভ করেন শ্রদ্ধেয় আনোয়ার মুফতি, রঙ্গলাল দেব চৌধুরী, আবু নাঈম, রনজিব বরন চৌধুরী, চান মিয়া, মোহাম্মদ হোসেন’সহ আরো অনেকের।
তাঁর বন্ধু রিপন চাকমা, সুশান্ত চাকমা, পিন্টু চাকমা, যেসব গান লিখতেন সেসব গানে গানের সুর করে নিজে গাইতেন। চাকমা গানের পাশাপাশি তিনি বহু বাংলা গান লিখে নিজে সুর করেছেন। রাঙামাটি বেতারের একজন তালিকাভুক্ত গীতিকার ও সংগীত প্রযোজক হিসেবে কাজ করেছেন। পাশাপাশি তিনি দীর্ঘদিন উপজাতীয় সাংস্কৃতিক ইনষ্টিটিউট বর্তমানে (ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইন্সটিটিউট) ও রাঙামাটি জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে সঙ্গীত প্রশিক্ষক হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেছেন।
তাঁর বহু গুনী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে চমচমী দেওয়ান, জয়তী চাকমা, তরুন চাকমা, পঠন চাকমা, সুব্রত চাকমা, প্রতুল চাকমা, রলি চাকমা, আরপনা চাকমা’সহ আরো অনেকে রয়েছেন। বর্তমানে তিনি সুর নিকেতন নামে একটি সংগঠনের সভাপতি হিসেবে কাজ করছেন। এই সংগঠনের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রায় ৫০/৬০জন ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে। তাঁর কর্মের স্বীকৃতি স্বরুপ তিনি উপজাতীয় সামাজিক ফোরাম কর্তৃক স্গংীতে সম্মাননা-২০০৪ ও শিল্পী নিকুঞ্জ কর্তৃক সম্মাননা-২০০৫ পুরস্কারে ভুষিত হয়েছেন। ব্যাক্তি জীবনে তিনি দুই ছেলে ও এক কণ্যার জনক এবং আট ভাই বোনের মধ্যে দ্বিতীয়।
বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ বেতার রাঙামাটির সঙ্গীত প্রযোজক, জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ সঙ্গীত সংগঠন সমন্বয় পরিষদ রাঙ্গামাটি জেলা শাখার আহ্বায়ক, রাঙামাটি জেলা শিল্পকলা একাডেমীর যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক এবং সুর নিকেতনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি।
মনোজ বাহাদুর গুর্খার প্রযোজনা ও রচনায় “জায়” মিউজিক ভিডিও (চাকমা), মারমা মিউজিক ভিডিও, উপজাতীয় গানের এমপি থ্রি মিউজিক সিডি, রাঙামাটি পাগাড়ে নামক মিক্সড মিউজিক এ্যালবাম, চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা জনগোষ্ঠীদের নিয়ে প্রামান্য চিত্র, তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ বিষয়ক তথ্য চিত্র, চাকমা ভিডিও নাটক কোচ পানা (প্রথম প্রয়াস), “বাঝি বেই” চাকমা মিউজিক ভিডিও, বাংলা ভিডিও নাটক যৌতুক একটি অভিশাপ, স^রলিপি চাকমা গানের বই, এবং নির্যাস (মিক্সড) প্রকাশিত হয়।

Print Friendly, PDF & Email

Share This:

খবরটি 125 বার পঠিত হয়েছে


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*
*

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

ChtToday DOT COMschliessen
oeffnen