শিরোনামঃ

কোটি টাকা ব্যয়ে তোরন নির্মান, জমকালো অনুষ্ঠান

বীর বাহাদুরের সংবধর্নায় ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের ব্যবহার

বিশেষ রিপোর্ট, সিএইচটি টুডে ডট কম।  বান্দরবান থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপিকে বরন করতেbir বান্দরবানে সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে শিশুদের ব্যবহার করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া অন্তত কোটি টাকা ব্যয় করে তোরন নির্মান সংবধর্না নেয়াকে ঘিরে পাহাড়ে চলছে নানা আলোচনা সমালোচনা। 
পঞ্চমবারের মত এমপি নির্বাচিত হওয়া এবং সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদারের পরাজয়ের পর ভাগ্য খুলে যায় বীর বাহাদুর এমপির। প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার পর প্রথমবারের মত বুধবার তিনি বান্দরবান আসেন। ওইদিনই তাকে দেয়া  হয় সংর্বধনা। সংবর্ধনা উপলক্ষে বুধবার দুপুরে জেলা শহরের প্রধান সড়কের দুই পাশে সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কোমলমতি শিশুদের শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ রেখে ফুল ও ব্যানার নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড় করিয়ে রাখেন বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। এ সময় তাদের সঙ্গে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষকদেরও দেখা গেছে।

জানা গেছে, বান্দরবান শহর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বান্দরবান আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কালেক্টরেট স্কুলসহ সরকারি হাই স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের ব্যানার ও ফুল নিয়ে  রোদের মধ্যে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শহরের একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক বলেন, বিশেষ চাপের কারণে আমরা শিশুদের দিয়েছি।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে রাজনৈতিক কর্মসূচি ও মন্ত্রী-এমপিদের সংবর্ধনায় কোমলমতি শিশুদের ব্যবহার না করতে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হলেও তা মানা হয়নি, ব্যবহার করা হয়েছে শিশুদের।

এ ব্যাপারে এক শিশুর অভিবাবক কামাল হোসেন জানান, আমরা শিশুদের পড়তে স্কুলে পাঠিয়েছি, রাস্তায় দাঁড় করিয়ে রাখার জন্য নয়।

এদিকে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপির সংবর্ধনা উপলক্ষে সাতকানিয়ার কেরানিহাট থেকে শুরু করে পুরো বান্দরবান শহরকে তোরনে ঘিরে ফেলা। অন্তত ২ শতাধিক তোরন নির্মান করা হয়। বিমান যোগে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে আসার পর অন্তত দুই শতাধিক মোটর সাইকেল, ১০০টির মত মাইক্রেবাস জীপ গাড়ী করে কেরানী হাট থেকে শোভাযাত্রা করে বীর বাহাদুরকে বান্দরবান নিয়ে আসা হয়। আয়োজন করা হয় জমকালো অনুষ্ঠানের। সেখানে দেশের ২/১জন নামী দামী শিলপী ছাড়াও বাংলাদেশী আইডল ও ক্ষুদে রাজ শিল্পীরা গান পরিবেশন করে।6_n

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কেবল বান্দরবান নয় নিয়ে আসা হয় বান্দরবান সংলগ্ন  চট্টগ্রাম জেলার কিছু উপজেলা থেকে লোকজনকে।

রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অংশু চাই চেৌধুরীর নেতৃত্বে কাপ্তাই মারমা সম্প্রদায়ের একদল নেতা সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেয়। যিনি এক সময় দীপংকর তালুকদারের কাছের মানুষ হিসেবে পরিচিত ছিলেন।

কোটির টাকার বেশী খরচ করে রাজকীয় সংবর্ধনার আয়োজন দেখে বান্দরবান মানুষও হতবাক। তাদের এমপি বীর বাহাদুর আর প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুরের মধ্যে অনেক তফাৱ।

অপরদিকে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশেসিং কয়েক হাজার মানুষ জড়ো করে কোটি টাকা ব্যয় করে বিশাল সংবর্ধনা আয়োজন করলেও স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ছিল উপেক্ষিত। বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার বিভাগ থেকে তাদের কোন দাওয়াত দেয়া হয়নি।

 

Print Friendly, PDF & Email

Share This:

খবরটি 306 বার পঠিত হয়েছে


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*
*

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

ChtToday DOT COMschliessen
oeffnen