শিরোনামঃ

বান্দরবানে সীমের ভালো ফলনে কৃষকের মুখে হাসি

কৌশিক দাশ, সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবান পার্বত্য জেলার বিভিন্ন এলাকায় এখন চলছে সীমের আবাদ , পাহাড়ের ঢালু আর বিস্তীণ জমিতে কৃষকেরা করেছে সীম চাষ। গতবছর যেসব জমিতে শীতকালিন বিভিন্ন সবজি আবাদ করা হয়েছিল এবছর বেশি লাভের আশায় সেখানে সীমের আবাদ করছে কৃষকেরা, আর পর্যাপ্ত উৎপাদন ও বিক্রি করে লাভবান হওয়ায় খুশি সীম চাষীরা। বান্দরবানের বিস্তীর্ণ জমিতে এবার সীমের আবাদ হয়েছে ভালো। জেলা সদরের রেইচা ,ক্যামলং,লাঙ্গিপাড়া ,সুয়ালকে এখন কৃষকেরা ব্যস্ত সময় পার করছে জমি থেকে সীম উত্তোলনে। এবছর বান্দরবানে দেশী ও সীতাকুন্ডের সীম বেশি আবাদ হয়েছে ।
কৃষকেরা জানায় বাংলা ভাদ্র মাস থেকে সীম চাষের জন্য জমি প্র¯ু‘ত করেন চাষীরা। জমিতে বীজ বপন করা হয় কার্তিক মাসে, আর ২১ থেকে ২৫দিনের মধ্যেই গাছ লতায় লতায় ছেয়ে যায় চারিদিকে। এসময় সীম গাছের বেগুনী রঙের ফুলে ফুলে অপরূপ সৌন্দয্য দৃষ্টি কেড়ে নেয় সকলের। আর সীমের ভালো উৎপাদন দেখে কৃষকেরা মনে আনন্দের জোয়ার হয় অনেকটা। এদিকে গতবছরের চেয়ে এবারে সীমের উৎপাদন ভালো হওয়ায় আর দাম ও বেশি পাওয়ায় খুশি সীম চাষিরা।
বান্দরবানের রেইচা এলাকার সীম চাষী মো: আবুল বশর জানান এবছর সীম ভালো হয়েছে। গত বছরের চেয়ে এবছর সীম বেশি হয়েছে । সীম চাষী মো:গফুর জানান, সীম ভালো উৎপাদন হয়েছে আর বিক্রি করে ও ভালো দাম পাচ্ছি । এ বছর প্রতিমনে আমরা ১৬০০-২০০০টাকা বিক্রি করছি।
বান্দরবানের কৃষি বিভাগ জানায় ,গত বছরের চেয়ে এবছর সীম উৎপাদন বেড়েছে অনেকটা। বান্দরবান জেলায় ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ৪৮১ হেক্টর জমিতে সীম উৎপন্ন হয়েছিল ৬হাজার ৮শত ১৯ মেট্টিকটন। আর ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ৫৫৮ হেক্টর জমিতে প্রায় ৮ হাজার পাঁচশত মেট্টিকটন সীম উৎপাদন হয় আর এবছর ৫৮৫ হেক্টর জমিতে ১০ হাজার ২ শত ৭মেট্টিকটন উৎপাদন হবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করে কৃষি বিভাগ।
সীম চাষীরা জানান এবারে সীম উৎপাদন বেশি হয়েছে এবং বিক্রি করে লাভবান হচ্ছে অনেকেই, স্থানীয় ছাহিদা মিটিয়ে সীম এখন দেশের নানা প্রান্তে পৌঁছে যাচ্ছে।
বান্দরবান কৃষি বিভাগের উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা অংক্যনু মার্মা জানান, কৃষকদের সীম চাষে সফলতার জন্য তাদের প্রশিক্ষণ ,সার,বীজসহ নানা তথ্য উপাত্ত দিয়ে সহায়তা করছে কৃষি বিভাগ। আমরা প্রায় সময়ই মাঠ পরিদর্শন করে কৃষকদের ভালো সীম উৎপাদনে পরামর্শ দিয়ে থাকি এবং ন্যায্য মুল্যে সীম চাষিরা যাতে তাদের উৎপাদিত সীম বিক্রি করতে পারে তার জন্য পাইকারি বিক্রেতাদের সাথে যোগাযোগ করে দিয়ে থাকি।
বান্দরবানের মাটি আবহাওয়া ও জলবায়ু সীম চাষের জন্য উপযোগী, আর দিন দিন কৃষকেরা সীম চাষ করে লাভবান হওয়ায় সীম চাষে প্রতি ঝুঁকছে অনেক কৃষক এমনটাই জানালেন সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো:ওমর ফারুক। তিনি বলেন, বান্দরবানে দিন দিন সীম চাষ বৃদ্ধি পাচ্ছে । জেলায় দেশি সীম ও সীতাকুন্ডু সীমের আবাদ হচ্ছে সবচেয়ে বেশি।
কৃষকেরা মনে করেন সীম চাষে সহজ শর্তে ব্যাংক থেকে ঋন প্রদান করা হলে অনেক চাষীই এই সীম চাষ করবে, ফলে একদিকে খাদ্যাভাব লাঘব হবে, অন্যদিকে খাদ্যে স¦য়ংসম্পুর্ণ হয়ে ওঠবে দেশ।

Print Friendly, PDF & Email

Share This:

খবরটি 65 বার পঠিত হয়েছে


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*
*

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

ChtToday DOT COMschliessen
oeffnen