শিরোনামঃ

বীর বাহাদুর, দীপংকর তালুকদার, কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা নাকি অন্য কেউ

কে হচ্ছেন পাহাড়ের মন্ত্রী?

সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। দশম জাতীয় সংসদের সদস্যরা আজ সংসদ ভবনে শপথ নেবার পর পরই পাহাড়ে নানা জল্পনা কল্পনা শুরু হয়েছে।Untitled-1 copy কে হচ্ছেন পাহাড়ের অধিকর্তা? কে পাচ্ছেন পার্বত্য মন্ত্রানলয়ের দায়িত্ব? বর্তমান প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার স্বতন্ত্র প্রার্থী ও জেএসএস নেতা উষাতন তালুকদারের কাছে পরাজিত হয়েছেন। 

১৯৯৬ সনে আওয়ামীলীগ সরকার গঠনের পর ১৯৯৭ সনের ২রা ডিসেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়, চুক্তির ধারা অনুযায়ী যে সরকার ক্ষমতায় থাকুক না কেন উপজাতীয়দের মধ্যে থেকে একজনকে মন্ত্রী বানানোর বিধান রয়েছে। চুক্তির পর ১৯৯৮ সনে খাগড়াছড়ির সাংসদ কল্প রঞ্জন চাকমাকে পুর্নমন্ত্রী, ২০০১ সনে বিএনপি সরকার রাঙামাটির মনিস্বপন দেওয়ানকে উপমন্ত্রী এবং ২০০৮ সনের নির্বাচনে পর রাঙামাটির আওয়ামীলীগ এমপি দীপংকর তালুকদারকে প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছিল। ২০১৩ সনে সর্বদলীয় সরকারেও দীপংকর তালুকদারকে প্রতিমন্ত্রী রাখা হয়, কিন্তু ২০১৪ সালের সংসদ নির্বাচনে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী উষাতন তালুকদারের কাছে ১৮ হাজার ভোটের ব্যবধানে হেরে যান।
স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সন্তু লারমার সমর্থিত পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি উষাতন তালুকদার (হাতি) প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা হচ্ছে ৯৬হাজার ২৩৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আওয়ামীলীগ প্রার্থী ও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার মোট প্রাপ্ত ভোট ৭৭ হাজার ৩৮৫ ভোট পান। উষাতন তালুকদার দীপংকর তালুকদারের চেয়ে ১৮ হাজার ৮৫২ ভোটের ব্যবধানে বিজয় লাভ করেন।
দীপংকর তালুকদার নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর সরকার গঠনের সময় পার্বত্য মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব কাকে দেয়া হবে এমন জল্পনা কেবল আওয়ামীলীগ নয় সাধারন মানুষের মনে দেখা দিয়েছে। এবার পাহাড়ের তিনটি আসনে রাঙামাটিতে স্বতন্ত্র উষাতন তালুকদার, খাগড়াছড়িতে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এবং বান্দরবান থেকে টানা ৫ বারের মত এমপি নির্বাচিত হয়েছেন বীর বাহাদুর। এর মধ্যে দুজন আওয়ামীলীগের একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী ছিলেন। তবে দলের বাইরে গিয়ে কাউকে এই মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব দেয়া হবে না এটা অনেকটা নিশ্চিত।

বান্দরবান থেকে টানা ৫ বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বীর বাহাদুরকে এবার মন্ত্রীসভায় স্থান দেয়ার দাবী জানিয়েছে বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীরা। তারা বলেন, পঞ্চম বারের মত এমপি হলেও এ পর্যন্ত তিনি কোন মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব পাননি। বান্দরবান থেকে এ পর্যন্ত কাউকে মন্ত্রী করা হয়নি, তাই এবার তাকে পার্বত্য মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব দেয়া হোক।
খাগড়াছড়ি থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য নতুন মুখ এবং বাকি দুজনের তুলনায় রাজনীতির মাঠে জুনিয়র। তাকে সরকার গঠনের পর হয়ত শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান করা হতে পারে। তবে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের দাবী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরাকে মন্ত্রী করা হোক।
পাহাড়ের অসম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী এবং সকল সম্প্রদায়ের কাছে মন্দের ভালো হিসেবে পরিচিত বর্তমান পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার রাঙামাটি আসনে হেরে গেছেন। তবে দলের নেতা কর্মীদের দাবী পরিকল্পিতভাবে তাকে হারানো হয়েছে। প্রত্যন্ত উপজেলাগুলোতে অস্ত্রধারীদের হুমকির তারা পোলিং এজেন্ট দিতে পারেননি। দলের ভোটাররা নিরাপত্তার জন্য শহরে চলে আসতে হয়েছিল তাই তিনি হেরে গেছেন। কথাটা আংশিক সত্য হলেও তার ব্যাক্তিগত আচার আচরনও অনেকটা দায়ী বলে নেতা কর্মীরা মনে করছেন। তবে সব কিছু ভুলে অতীত থেকে শিক্ষা নিয়ে জন বান্ধব হিসেবে দীপংকর তালুকদার পথ চলবেন এমনটা বিশ্বাস করে তাকে টেকনোক্রেট কোটায় পার্বত্য মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব দেবার দাবী জানিয়েছেন। তাদের মতে পাহাড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠা, পার্বত্য চুক্তি স্বাক্ষরসহ বিভিন্ন বিষয়ে দীপংকর তালুকদারের অবদান রয়েছে।
দীপংকর তালুকদারকে পুনরায় মন্ত্রী করা এবং কি কারনে তিনি হেরে গেছেন সেটি ব্যাখা করতে জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দসহ ১০টি উপজেলার আওয়ামীলীগের সভাপতি, সম্পাদক এবং সাংগঠনিক সম্পাদকরা এখন ঢাকায়। তারা দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করে পরাজয়ের কারন ব্যাখা করবেন।
অন্যদিকে রাঙামাটিতে থেকে নির্বাচিত জেএসএস নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী উষাতন তালুকদারের দল পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি আওয়ামীলীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটে নেই। তবে সরকার গঠনের সময় জেএসএসকে জোটে টানতে পারে আওয়ামীলীগ। সেক্ষেত্রে তিনিও কোন না কোন মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব পেতে পারেন।
তবে এখন দেখার পালা কে পাচ্ছেন পার্বত্য মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব? বীর বাহাদুর, দীপংকর তালুকদার, কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা নাকি অন্য কেউ?

Print Friendly, PDF & Email

Share This:

খবরটি 597 বার পঠিত হয়েছে


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*
*

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

ChtToday DOT COMschliessen
oeffnen